প্রবা লন্ডন অফিস : প্রাক্তন কিংফিশার কর্তা বিজয় মাল্যের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা রয়েছে বলে আদালতে জানাল ভারত সরকার।

লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেটস কোর্টে আজ ঋণ খেলাপের মামলায় অভিযুক্ত মাল্যের প্রত্যর্পণ মামলার শুনানি শুরু হয়েছে। আদালতে হাজির ছিলেন মাল্য। এ দিন ভারত সরকারের তরফে সওয়াল করেন ব্রিটেনের ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিসের আইনজীবী মার্ক সামার্স। তিনি জানান, প্রায় একই সম্পত্তি বন্ধক রেখে বিভিন্ন ব্যাঙ্কের কাছ থেকে কয়েকশো কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিল মাল্যের কিংফিশার এয়ারলাইন্স। সেই সম্পত্তির মধ্যে ছিল ওই শিল্পপতির নিয়ন্ত্রণাধীন ইউবি গোষ্ঠীর সুনাম ও কিংফিশারের ব্র্যান্ড ভ্যালু। সংস্থায় দ্রুত কিছু লগ্নি হবে বলেও ব্যাঙ্কগুলিকে জানিয়েছিল কিংফিশার। সেইসঙ্গে তারা জানায়, ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে ফের মুনাফার মুখ দেখবে কিংফিশার। কিন্তু সেই সময়ে বিমান শিল্পের অবস্থা ছিল করুণ।

মাল্যকে কাঠগড়ার বাইরে বসতে দেওয়ার জন্য আদালতকে অনুরোধ করেছিলেন তাঁর আইনজীবীরা। তাঁরা বিচারককে জানান, এই মামলায় কিছু জটিল নথি ব্যবহার হচ্ছে। তাই মাল্য তাঁদের পাশে বসলে সুবিধে হবে। কিন্তু বিচারক আর্জি মঞ্জুর করেননি। ফলে অন্য আসামিদের মতোই কাচ ঘেরা কাঠগড়াতেই বসতে হয়েছে মাল্যকে। তবে নথি দেখার সুবিধের জন্য তাঁকে একটি টেবিল দেওয়া হয়েছে। আজ শুনানির মধ্যে হঠাৎ ফায়ার অ্যালার্ম বেজে ওঠে। ফলে মাল্য ও অন্যদের এজলাসের বাইরে গিয়ে কিছু ক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়। শুনানির আগে আদালতের বাইরে মাল্য সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘আমার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ আনা হয়েছে।’’ ব্রিটিশ সরকারকে সাহায্য করার জন্য লন্ডনে রয়েছে সিবিআই ও ইডি-র একটি দল। আজ সেই দলের এক সদস্য জানান, তাঁরা মাল্যের প্রত্যর্পণ নিয়ে আশাবাদী।